শিশুকে কথা বলা শিখানো

৭-৮ মাস বয়সে বা-দা-মা ইত্যাদি অর্থহীন শব্দ উচ্চারণের মাধ্যমে শিশুর মুখে প্রথম বোল ফোটে। এরপর ক্রমে ভাষাজ্ঞান অর্জনের ধাপগুলো বিকশিত হয়। জীবনের প্রথম ৩ বছর কথা ও ভাষা বিকাশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়। শ্রবণপ্রতিবন্ধিতা, অটিজম, ঠোঁটকাটা-তালুকাটাজাতীয় সমস্যা কথা বলার বিকাশে বাধা সৃষ্টি করতে পারে।

শিশুর কথা বলার নৈপুণ্য অর্জনে মা-বাবার ভূমিকা অনেক। শিশুর কথা শেখার সময় আপনি যেভাবে সাহায্য করতে পারেন।

* প্রতিদিন শিশুকে কিছুটা সময় দিতে চেষ্টা করুন। তার যেকোনো কথার প্রতি আগ্রহ দেখান। শিশু কিছু বলতে চেষ্টা করলে উৎসাহিত করুন।
* খেলা ও ছবির বই দিয়ে শিশুকে শেখান; যেমন বলের ছবি দেখিয়ে ‘এটি বল’ বলুন।
* শিশুরা সাধারণত ছন্দ ও সংগীত ভালোবাসে। তাই ছড়াগান, ছড়া, কবিতা, গানের মাধ্যমে খেলা করতে শেখান।
* শব্দ হয় এ ধরনের খেলা যেমন—পুতুল, ঝুনঝুনি, গাড়ি ইত্যাদি দিয়ে খেলতে খেলতে এ সম্পর্কে বলুন।
* বাইরের পরিবেশের সঙ্গে পরিচিত হতে দিন। যেমন—রাস্তায় গাড়ি, আকাশে বিমান, পার্কে গাছপালা, মাটিতে পড়ে থাকা পাতা দেখিয়ে পরিচয় করিয়ে দিন।
* নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস যেমন—থালা-বাসন, গ্লাস-চামচ ইত্যাদির সঙ্গেও পরিচিত করান। খাওয়ার সময় শিশুকে কী খাওয়াচ্ছেন, খেতে কেমন স্বাদ সে সম্পর্কেও কিছু বলুন।
* ইশারার চেয়ে মুখে চাইতে শেখান। যেমন—শিশু যদি হাত দিয়ে বেলুন দেখায়, আপনি বলবেন—এটা হলো বেলুন, তুমি কি বেলুন চাও?
* দুই বছরের কম বয়সী শিশুর টেলিভিশন না দেখাই ভালো। দুই থেকে ছয় বছর বয়সে কেবল ২ ঘণ্টার জন্য মা-বাবার সঙ্গে বসে বোধগম্য ভাষার অনুষ্ঠান দেখবে।

বিভাগীয় প্রধান, শিশুস্বাস্থ্য বিভাগ, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।

প্রথম আলো

বি:দ্র: আমাদের প্রতিটি লেখার নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুকপেজ-এ লাইক দিন এবং বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। আপনার মনে কোন প্রশ্ন থাকলে এবং যেকোন বিষয়ে জানতে চাইলে অথবা আপনার কোন লেখা প্রকাশ করতে চাইলে আমাদের ফেসবুক পেজ বিডি লাইফ এ যেয়ে ম্যাসেজ করতে পারেন।

ফেসবুকের হোমপেজে নিয়মিত আপডেট পেতে নিচের লাইক বাটনে ক্লিক করুন

⇒ লেখাটি ভালো লাগলে প্লিজ বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। শেয়ার করতে √ এখানে ক্লিক করুন

আপনার ফেসবুক একাউন্ট থেকে খুব সহজেই কমেন্ট করুন

মন্তব্য করুনঃ

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন
দয়া করে আপনার নাম লিখুন

five × 5 =