মশার কামড়

মশার কামড় থেকে কী না হয়! ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়া… আরও কত কী। তাই একটাও মশা যাতে না কামড়ায়, সব সময় সতর্ক থাকতে হয়। অনেক সতর্কতা সত্ত্বেও কিছু মানুষকে মশা যেন একটি বেশিই কামড়ায়। কখনও ভেবে দেখেছেন, কেন এমন হয়!

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার ইউসি ডেভিস বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক জানাচ্ছেন, কিছু কিছু মানুষের শরীরে মশার প্রিয় রাসায়নিক বেশি থাকে। তাই তারা সেই সব মানুষদের প্রতি বেশি আকৃষ্ট হয়। অনেকেই ঠাট্টা করে মাঝে মধ্যে বলেন, যাঁদের রক্ত বেশি মিষ্টি তাঁদেরকেই মশা বেশি কামড়ায়। আসলে বিষয়টাও অনেকটা তেমনই। অন্তত এমনটাই দাবি এই মার্কিন গবেষকদের।

ইউসি ডেভিস বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক লার্ক কফির মতে, মানুষের শরীরের গন্ধ এবং নিঃশ্বাসের সঙ্গে নির্গত কার্বন ডাই-অক্সাইডে আকৃষ্ট হয় মশা। কারও কারও শরীরের গন্ধ মশার কাছে বেশি প্রিয়। তাঁর মতে, আমাদের ত্বক থেকে নিঃসৃত কিছু রাসায়নিক (যেমন, ল্যাকটিক এসিড) মশাকে বেশি আকর্ষণ করে। যাঁদের শরীর থেকে ল্যাকটিক অ্যাসিড বেশি নির্গত হয়, তাঁদের প্রতি মশা বেশি আকৃষ্ট হয়। এ ছাড়াও পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে, ও (O Blood group) গ্রুপের রক্তের মানুষকে মশা বেশি কামড়ায়। এই মার্কিন গবেষকদের দাবি, গর্ভবতী মহিলা, যাঁদের শরীর অতিরিক্ত মেদযুক্ত, শরীর চর্চার পর বা মদ্যপানের পর মানুষকে মশা বেশি কামড়ায়।

বি:দ্র: আমাদের প্রতিটি লেখার নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুকপেজ-এ লাইক দিন এবং বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। আপনার মনে কোন প্রশ্ন থাকলে এবং যেকোন বিষয়ে জানতে চাইলে অথবা আপনার কোন লেখা প্রকাশ করতে চাইলে আমাদের ফেসবুক পেজ বিডি লাইফ এ যেয়ে ম্যাসেজ করতে পারেন।

ফেসবুকের হোমপেজে নিয়মিত আপডেট পেতে নিচের লাইক বাটনে ক্লিক করুন

⇒ লেখাটি ভালো লাগলে প্লিজ বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। শেয়ার করতে √ এখানে ক্লিক করুন

আপনার ফেসবুক একাউন্ট থেকে খুব সহজেই কমেন্ট করুন

মন্তব্য করুনঃ

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন
দয়া করে আপনার নাম লিখুন

15 + six =