broner dag
data-language="en">

বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে ত্বকে বলিরেখা, রিংকেল দেখা দেবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এই বলিরেখা বয়স বৃদ্ধির আগে যদি ত্বকে দেখা দেয় তবে তা চিন্তার বিষয়। এই বলিরেখা বা রিংকেল দূর করার জন্য ব্যবহার করা হয় কত না ক্রিম, করা হয় কত না বিউটি ট্রিটমেন্ট। মূলত যেসকল কারণে ত্বকে বলিরেখা দেখা দেয় সেগুলো হল,

  • ধূমপান
  • পাতলা ত্বক
  • সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি
  • কিছু হেয়ার স্টাইল
  • সূর্যে আলোর সংস্পর্শে থাকতে হয় এমন জীবনযাত্রা
  • মুখের কিছু অঙ্গভঙ্গি ইত্যাদি

নারীদের ত্বকের আরেক শত্রু হল ব্রণ এবং ব্রণের দাগ। ব্রণ দূর করা গেলেও নাছোড়বান্দা ব্রণের দাগ দূর করার বেশ কষ্টকর।

data-language="en">

যদি একটি প্যাক ব্যবহার করে ব্রণের দাগ এবং বলিরেখা দূর করা যায় তবে কেমন হয়? ভাবছেন এটি কী সম্ভব? হ্যাঁ সম্ভব, একটি মাত্র প্যাক ব্যবহার করে ত্বক থেকে ব্রণের দাগ দূর করে বলিরেখা পড়া রোধ করা সম্ভব।

যা যা লাগবে:

  • এক টেবিল চামচ লেবুর রস
  • এক টেবিল চামচ মধু
  • এক টেবিল চামচ জায়ফল গুঁড়ো

যেভাবে তৈরি করবেন:
১। জায়ফল ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে গুঁড়ো করে নিন।

২। এক টেবিল চামচ জায়ফল গুঁড়োর সাথে এক টেবিল চামচ মধু, এক টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন।

৩। এই প্যাকটি ত্বকে লেয়ার করে লাগিয়ে নিন।

৪। ১৫ মিনিট এটি ত্বকে লাগিয়ে রাখুন।

৫। তারপর পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। আপনি চাইলে ফেসওয়াশ ব্যবহার করতে পারেন।

কার্যকরিতা:
মধু, লেবুর রস এবং জায়ফল গুঁড়ো ব্রণ এবং বলিরেখা দূর করতে বেশ কার্যকর। এসব প্রাকৃতিক উপাদান ত্বকের কোলাজন উৎপাদন করে এবং ত্বকের নমনীয়তা বজায় রাখে। জায়ফল গুঁড়ো ত্বকের ইফকেশন দূর করে। লেবুর রস ব্রণের কালো দাগ দূর করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

data-language="en">

বি:দ্র: আমাদের প্রতিটি লেখার নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুকপেজ-এ লাইক দিন এবং বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। আপনার মনে কোন প্রশ্ন থাকলে এবং যেকোন বিষয়ে জানতে চাইলে অথবা আপনার কোন লেখা প্রকাশ করতে চাইলে আমাদের ফেসবুক পেজ বিডি লাইফ এ যেয়ে ম্যাসেজ করতে পারেন।

ফেসবুকের হোমপেজে নিয়মিত আপডেট পেতে নিচের লাইক বাটনে ক্লিক করুন

data-language="en">

মন্তব্য করুনঃ

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন
দয়া করে আপনার নাম লিখুন

11 − one =